কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে মুরগীর বিষ্ঠা বাড়ির সামনে ফেলায় এক নারীকে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিত: ৩:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২৪ | আপডেট: ৩:১৫ অপরাহ্ণ,

মোঃ রাওফুল বরাত বাঁধন ঢালী:::

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে বাড়ির সামনে খামারের মুরগির বিষ্ঠা ফেলা কে কেন্দ্র করে ঝগড়ার এক পর্যায় সুফিয়া বেগম (৪৮) নামের এক নারীকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার আন্ধারিঝাড় ইউনিয়নের বীর বাড়ুইটারি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। মৃত নারী ওই গ্রামের বরকত মুন্সির স্ত্রী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মৃত ওই নারীর স্বামী বরকত মুন্সির সাথে প্রতিবেশী মোহাম্মদ আলীর ছেলে শাহিন হোসেন সাদ্দাম এর জমি জমা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছিল। এরি মধ্যে বরকত মুন্সী নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় একটি মুরগির খামার করেন। খামারের সকল মুরগি বিষ্ঠা তার নিজস্ব জমিতে একটি গর্তের মধ্যে ফেলতেন। তা সাদ্দামের বাড়ির সামনে হওয়ায় সে নিয়মিত প্রতিবাদ করতো এবং মুরগির বিষ্ঠা ফেলতে নিষেধ করতো। রবিবার ( ৭ জুলাই ) বিকেলে বরকত মুন্সির স্ত্রী খামারের মুরগির বিষ্ঠা ফেলতে গেলে বাঁধা দেয় সাদ্দাম। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। ঝগড়ার এক পর্যায় সাদ্দাম কাঠের লাঠি দিয়ে সুফিয়া বেগমের মাথায় জোড়ে আঘাত করলে মাথা ফেটে ঘটনাস্থলে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। পরে বাড়ির লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় সুফিয়া বেগমকে উদ্ধার করে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

আন্ধারিঝাড় ইউপি চেয়ারম্যান জাবেদ আলী মন্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি ) রুহুল আমিন জানান, রাতেই লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠানো হবে। এখন পর্যন্ত পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



একটি মন্তব্য করুন

আপনার ইমেল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *